ব্রেকিং নিউজ :
প্রধানমন্ত্রীর ১০টি বিশেষ উদ্যোগ নিয়ে মেহেরপুরে দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ কর্মশালা দুর্নীতির মামলায় বিএনপির সাবেক এমপি জ্যোতির ৭ বছর কারাদন্ড সঠিক তথ্য পেতে গোয়েন্দা সংস্থা ও আইন শৃংখলা বাহিনীর সাথে কাজ করবে ভোক্তা অধিকার অধিদপ্তর দ্রব্যমূল্য নিয়ে ৩ দিনের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে বাংলাদেশ ব্যাংকসহ অর্থ ও বাণিজ্য মন্ত্রণালয়কে মন্ত্রিসভার নির্দেশ সকল ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করে আওয়ামী লীগ বিজয়ের বন্দরে পৌঁছাবে : ওবায়দুল কাদের দেশের নিরাপত্তা যাতে বিঘ্ন করতে না পারে; সেদিকে সতর্ক থাকতে হবে : নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী জনগণের আস্থা পূরণে বিএসটিআইকে আরো দক্ষ ও দায়িত্বশীল ভূমিকা পালনের আহবান রাষ্ট্রপতির ওজন ও পরিমাপে ডিজিটাল রূপান্তর ভোক্তা সাধারণের জন্য সুফল বয়ে আনবে : প্রধানমন্ত্রী মানুষের আস্থা অর্জন করেছে ভূমি মন্ত্রণালয় : ভূমিমন্ত্রী একুশের গানের জন্য গাফফার চৌধুরী অমর হয়ে থাকবেন : অধ্যাপক আরেফিন
  • আপডেট টাইম : 25/01/2022 08:09 PM
  • 60 বার পঠিত

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম বলেছেন, ‘যত প্রতিবন্ধকতাই থাকুক না কেন জনগণের সহায়তায় জিআইএস ম্যাপ অনুযায়ী নগরীর প্রত্যেকটি খালই উদ্ধার করা হবে।’
আজ রাজধানীর মোহাম্মদপুরের বসিলায় লাউতলা খালের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান ও খাল খনন পরিদর্শনকালে ডিএনসিসি মেয়র একথা বলেন।
মো. আতিকুল ইসলাম বলেন, টানা ৩ দিনের অভিযানের ফলশ্রুতিতে অস্তিত্বহীন লাউতলা খালটি এখন দৃশ্যমান হয়েছে। স্থানীয় জনগণসহ যাদের আন্তরিক সহযোগিতায় অসম্ভব কাজটি সম্ভব হয়েছে তাদের প্রতি তিনি আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।
মেয়র বলেন, বসিলাবাসীর স্বার্থেই প্রায় আড়াই কিলোমিটার দৈর্ঘ্যবিশিষ্ট লাউতলা খালটিকে বুড়িগঙ্গা নদীর সাথে সংযুক্ত করে এতে পানি প্রবাহের সৃষ্টি করা হবে।
তিনি আবারও কঠোর হুঁশিয়ারী উচ্চারণ করে বলেন, ‘অবৈধ দখলদারদের নামে কোন বৈধ নোটিশ ইস্যু করা হবে না, বিনা নোটিশেই তাদেরকে উচ্ছেদ করা হবে। তাই ইতোমধ্যে যারা অবৈধভাবে খাল দখল করে বিভিন্ন স্থাপনা নির্মাণ করেছেন, তাদেরকে দ্রুততম সময়ের মধ্যে অবৈধ দখল ছেড়ে দিতে হবে। অন্যথায় অভিযান পরিচালনা করে অবৈধ স্থাপনাগুলো ভেঙ্গে গুঁড়িয়ে দেয়া হবে।’
মেয়র আরও বলেন, বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সহায়তায় ডিএনসিসি’র আওতাধীন খালগুলোর সীমানা নির্ধারণ কার্যক্রম চলমান রয়েছে। প্রত্যেকটি খালে সীমানা পিলার স্থাপন, ওয়াকওয়ে নির্মাণ এবং যথাযথভাবে রক্ষণাবেক্ষণের ব্যবস্থা করা হবে। সকল খালের উভয় পাশেই নির্ধারিত সীমানার কমপক্ষে ২০ ফুট পর্যন্ত কোন ধরনের স্থাপনা নির্মাণ করা যাবেনা।
মো. আতিকুল ইসলাম বলেন, সময়ের চাহিদায় নগরীর ব্যস্ততম এলাকা থেকে বাস ও ট্রাক টার্মিনালগুলো সরিয়ে সুবিধাজনক স্থানে স্থাপন করতে হবে।
ডিএনসিসি মেয়র-এর উপস্থিতিতেই রাজধানী উদ্যান প্রকল্পের গেইটসহ লাউতলা খালের জায়গা দখল করে অবৈধভাবে নির্মিত অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়।
এসময় অন্যান্যের মধ্যে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম, ঢাকা-১৩ আসনের সংসদ সদস্য মো. সাদেক খান, ডিএনসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সেলিম রেজা, প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. জোবায়দুর রহমান, প্রধান প্রকৌশলী ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মুহাম্মদ আমিরুল ইসলাম, প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা কমোডর এস এম শরিফ-উল ইসলাম, প্রধান সম্পত্তি কর্মকর্তা মো. মোজাম্মেল হক এবং স্থানীয় কাউন্সিলর আসিফ আহমেদ উপস্থিত ছিলেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
ফেসবুকে আমরা...