ব্রেকিং নিউজ :
প্রধানমন্ত্রীর ১০টি বিশেষ উদ্যোগ নিয়ে মেহেরপুরে দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ কর্মশালা দুর্নীতির মামলায় বিএনপির সাবেক এমপি জ্যোতির ৭ বছর কারাদন্ড সঠিক তথ্য পেতে গোয়েন্দা সংস্থা ও আইন শৃংখলা বাহিনীর সাথে কাজ করবে ভোক্তা অধিকার অধিদপ্তর দ্রব্যমূল্য নিয়ে ৩ দিনের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে বাংলাদেশ ব্যাংকসহ অর্থ ও বাণিজ্য মন্ত্রণালয়কে মন্ত্রিসভার নির্দেশ সকল ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করে আওয়ামী লীগ বিজয়ের বন্দরে পৌঁছাবে : ওবায়দুল কাদের দেশের নিরাপত্তা যাতে বিঘ্ন করতে না পারে; সেদিকে সতর্ক থাকতে হবে : নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী জনগণের আস্থা পূরণে বিএসটিআইকে আরো দক্ষ ও দায়িত্বশীল ভূমিকা পালনের আহবান রাষ্ট্রপতির ওজন ও পরিমাপে ডিজিটাল রূপান্তর ভোক্তা সাধারণের জন্য সুফল বয়ে আনবে : প্রধানমন্ত্রী মানুষের আস্থা অর্জন করেছে ভূমি মন্ত্রণালয় : ভূমিমন্ত্রী একুশের গানের জন্য গাফফার চৌধুরী অমর হয়ে থাকবেন : অধ্যাপক আরেফিন
  • আপডেট টাইম : 13/05/2022 09:25 PM
  • 25 বার পঠিত

যশোর জেলার ৩ উপজেলায় ভোটার তালিকা হালনাগাদের কাজ শুরু হচ্ছে আগামী ২০ মে থেকে। উপজেলা তিনটি হচ্ছে, সদর, অভয়নগর ও বাঘারপাড়া।
১ হাজার ১২০ জন তথ্য সংগ্রহকারী হালনাগাদের তথ্য সংগ্রহ করতে বাড়ি-বাড়ি যাবেন। তাদের তদারকি করবেন ২৩৩ জন সুপারভাইজার। প্রথম দফায় এই তিনটি উপজেলায় তথ্য সংগ্রহকারী নিয়োগ দেয়া হবে ৪৭৮ জনকে। আর সুপারভাইজার থাকবেন ১০৩।
জেলা নির্বাচন অফিস থেকে পাওয়া তথ্যে এসব জানাগেছে।
কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, এবার বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভোটার তালিকা হালনাগাদ করা হবে আগামী ২০ নভেম্বর পর্যন্ত। এই কার্যক্রমে ২০০৭ সালের পহেলা জানুয়ারি বা তার আগে যারা জন্মগ্রহণ করেছেন তাদের তথ্য সংগ্রহ করা হবে। একইসাথে তথ্য নেয়া হবে ১৬ বছর বয়সীদেরও। যাতে তাদের বয়স ১৮ বছর হওয়ার সাথে সাথে স্বয়ংক্রিয়ভাবে ভোটার তালিকায় যুক্ত হতে পারেন। তারা ২০২৪ ও ২০২৫ সালে ভোটার তালিকায় যুক্ত হবেন। বাড়ি বাড়ি গিয়ে ইসি নিয়োজিত কর্মীরা তথ্য নেয়ার পর সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিকে নির্দিষ্ট কেন্দ্রে গিয়ে আঙুলের ছাপ, চোখের আইরিশ দিয়ে এবং ছবি তুলে নিবন্ধন কার্যক্রম সম্পন্ন করতে হবে।
হালনাগাদ ভোটার তালিকা থেকে মৃত ভোটারের নাম বাদ দেয়া হবে। আবাসস্থল পরিবর্তনের কারণে স্থানান্তরের বিষয়টিও করা হবে তালিকাভুক্ত।
সূত্র জানিয়েছে, নিবন্ধনের লক্ষ্যে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির পূরণকৃত নিবন্ধন ফরম-২ এর সাথে অনলাইন জন্মসনদ (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে) অথবা এসএসসি বা সমমান পরীক্ষা বা যেকোনো পাবলিক পরীক্ষা পাসের সনদের ফটোকপি জমা দিতে হবে। এছাড়া, নাগরিক সনদ, প্রত্যয়নপত্র/বাড়ি ভাড়া/হোল্ডিং ট্যাক্স/যেকোনো ইউটিলিটি বিল পরিশোধের রশিদের কপি জমা দিয়ে নিবন্ধন সম্পন্ন করতে হবে।
বাংলাদেশের হিজড়া জনগোষ্ঠীকে স্বীকৃতি দেয়ায় তারা ভোটার তালিকায় নতুন করে অন্তর্ভুক্তি হতে পারবেন। তবে, হিজড়া জনগোষ্ঠীকে ভোটার হিসেবে নিবন্ধনের ক্ষেত্রে তাদের শনাক্তকরণের জন্য সমাজসেবা অফিসের প্রত্যয়নপত্র অথবা স্থানীয় জনপ্রতিনিধির প্রত্যয়নপত্র লাগবে। এ বিষয়ে যথাযথ দৃষ্টি রাখার নির্দেশনা দিয়েছে নির্বাচন কমিশন। যাতে তারা যেন ভোটার তালিকায় নাম অন্তর্ভুক্তির ক্ষেত্রে কোনোভাবেই বঞ্চিত না হন।
এক ভোটার এলাকা থেকে অন্য ভোটার এলাকায় স্থানান্তরের লক্ষ্যে ফরম-১৩ (স্থানান্তর) পূরণপূর্বক প্রয়োজনীয় কাগজপত্রাদিসহ সরাসরি স্থানান্তরিত এলাকার থানা/উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয়ে জমা দেয়ার পর যথাযথ যাচাই-বাছাই ও তদন্ত সাপেক্ষে সংশ্লিষ্ট ভোটারের ভোটার এলাকা স্থানান্তর করা হবে।
এছাড়া, তথ্যসংগ্রহকারী বাড়ি বাড়ি গিয়েও ভোটার স্থানান্তরের তথ্য সংগ্রহ করে তা সংশ্লিষ্ট রেজিস্ট্রেশন অফিসারের কার্যালয়ে পাঠাবেন।
এবার তিন বছর পর বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভোটার তালিকা হালনাগাদ কার্যক্রম হাতে নিচ্ছে নির্বাচন কমিশন। আগামী সংসদ নির্বাচনের আগে বাড়ি বাড়ি গিয়ে শেষ হবে হালনাগাদ কার্যক্রম। তথ্য সংগ্রহকারী ও সুপারভাইজার পদে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের নিয়োগ দেয়া হবে বলে সূত্র জানিয়েছে।
এ বিষয়ে জেলা নির্বাচন অফিসার আনিছুর রহমান জানিয়েছেন, তাদের প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। বৃহস্পতিবার ডাটা এন্ট্রি অপারেটর নিয়োগ করতে ভাইভা নেয়া হয়েছে। আগামী ১৬,১৭ ও ১৮ মে তথ্য সংগ্রহকারীদের প্রশিক্ষণ হবে। রেজিস্ট্রেশন কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণ দিয়েছে নির্বাচন কমিশন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
ফেসবুকে আমরা...