ব্রেকিং নিউজ :
শিশু অধিকার সুরক্ষায় গৃহীত কর্মসূচি বাস্তবায়নে জোর দিতে হবে : পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী যুবসমাজকে লেখাপড়ার পাশাপাশি স্কাউটিংয়ে আরো বেশি সম্পৃক্ত করার আহ্বান রাষ্ট্রপতির দেশে গত ২৪ ঘন্টায় করোনায় ২ জনের মৃত্যু যুক্তরাজ্যকে ১ লাখ রোহিঙ্গাকে পুনর্বাসনের প্রস্তাব মোমেনের শেখ হাসিনাকে হত্যাচেষ্টা মামলায় মৃত্যুদন্ডপ্রাপ্ত পলাতক আসামি পিন্টু কারাগারে পদ্মা সেতু পারাপারে যাত্রীদের দায়িত্বশীল ভূমিকা পালনের আহ্বান সেতুমন্ত্রীর পদ্মা সেতুর নাট-বল্টু খুলতে সরঞ্জাম ব্যবহার করা হয়েছে : সিআইডি ভেজাল এবং নকল পণ্য প্রতিরোধে সর্বস্তরে সচেতনতা প্রয়োজন : স্পিকার বরিশাল ক্যাডেট কলেজে নবনির্মিত ক্যাডেট হাউস উদ্বোধন করলেন সেনাবাহিনী প্রধান পদ্মা সেতুর রেলিংয়ের নাট খুলে টিকটক ভিডিও করা বায়েজিদ সাতদিনের রিমান্ডে
  • আপডেট টাইম : 25/09/2021 07:06 PM
  • 306 বার পঠিত

সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া পৌরসভার প্রাণকেন্দ্র ঘোষগাঁতী মায়া মন্দীর সংলগ্নে সামান্য বৃষ্টি হলেই জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়ে রাস্তা তলিয়ে হাটু পানি বেধে যায়। আর সেই সাথে রাস্তা গড়িয়ে পানি ঢুকে আশপাশের বাসা-বাড়ি ছোটখাটো কারখানা ও অফিস গুলোতে যাতায়াতে চরম ভোগান্তীতে পরতে হয় জনসাধারনের। কিছুতেই মুক্তি মিলছে না শত শত ঘোষগাঁতী মহল্লা বাসীর। সামনে দূর্গাপুজা, রাস্তার সাথেই মায়া মন্দীর। ওই রাস্তার জলাবদ্ধতা দূর না হলে মন্দীরের পুজটাই ভূন্ডল হয়ে যাবে। দীর্ঘদিন ধরেই এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে উল্লাপাড়া পৌরসভার ৫ নং ওয়ার্ডের ঘোষগাঁতী মহল্লার মায়া মন্দীর সংলগ্ন এলাকায়।
এ নিয়ে ওই মহল্লাবাসী সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ড কাউন্সিলরের কাছে অভিযোগ করলেও তিনি বিষয়টি নিরসনের জন্য তেমন কোন উদ্যোগ নিচ্ছেন না বলে এলাকাবাসীর অভিযোগ। তবে নাগরিকদের এই দুর্ভোগ নিরসনে কাউন্সিলর ও মেয়রের সহজ-সরল ভাষায় স্বীকারোক্তি আর আশ্বাস ছাড়া আর কিছুই যেনো মিলছে না তাদের কাছ থেকে। এতে মহল্লাবাসী হতাশ হয়ে পড়েছে আর ভাবছে এটাই যদি হয় প্রথম শ্রেণীর পৌরসভা।
এমন অবস্থায় জলাবদ্ধতায় শিকার হওয়া স্থানীয়দের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। মানুষ ও যানবাহন চলাচলের একমাত্র রাস্তাটি বৃষ্টিতে তলিয়ে যায়, প্রায় এক থেকে দেড় ফুট উচ্চতার পানির নিচে।
ঘোষগাঁতী মহল্লার বাসিন্দা উল্লাপাড়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা গোলাম মোস্তফা জানান, সামান্য বৃষ্টি হলেই এলাকার যাতায়াতের প্রধান সড়কটি পানিতে তলিয়ে যায়। রাস্তা তলিয়ে গেলে মহল্লার শত শত শিক্ষার্থী ও কর্মজীবি মানুষের যাতায়াত বন্ধু হয়ে যায়। এলাকার বসবাসরত মানুষ মৌখিক ভাবে বহুবার পৌরসভার কাউন্সিলর ও জনপ্রতিনিধিদের জানালেও ড্রেনেজ ব্যবস্থা স্থাপন এবং রাস্তা সংস্কারের নেই কোন তেমন উদ্যোগ।
এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ড কাউন্সিলর এস. এম আমিরুল ইসলাম আরজু'র সাথে কথা বললে তিনি জানান, পৌরসভা থেকে কোন বরাদ্দ না থাকায় রাস্তার কাজে হাত দিতে পারছেন না তিনি। চলতি অর্থবছরে বরাদ্দ পাবার কথা থাকলেও করোনার কারনে আটকে গেছে সকল উন্নয়ন কার্যক্রম। তবে সামনে বরাদ্দ পাওয়া স্বাপেক্ষে ড্রেনেজ ব্যবস্থা ও রাস্তা সংস্কারের কাজ করা হবে। পুজা শুরু হওয়ার আগেই বিকল্প ব্যবস্থায় জলাবদ্ধতা দূর করা হবে।
উল্লাপাড়া পৌরসভার ভারপ্রাপ্ত ইঞ্জিনিয়ার সাফিউল ইসলাম জানান, নতুন পরিকল্পনায় পৌরসভার বিভিন্ন মহল্লার রাস্তা সংস্কার ও ড্রেনেজ ব্যবস্থার উন্নয়নের পরিকল্পনা চলছে। নগর পরিকল্পনার উন্নয়নের বাজেট বরাদ্দ পাওয়া স্বাপেক্ষে কাজ করা হবে।
পৌর মেয়র এস. এম. নজরুল ইসলাম জানান, করোনা পরিস্থিতিতে উন্নয়ন কার্যক্রম বন্ধ ছিল। অল্প সময়ের মধ্যেই নতুন করে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে অবহেলিত এলাকার উন্নয়ন কাজ শুরু করা হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
ফেসবুকে আমরা...