ব্রেকিং নিউজ :
এস এ মালেকের মরদেহে আওয়ামী লীগের শ্রদ্ধা রাস্তা বন্ধ করে সমাবেশ করলে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নয়া পল্টনে পুলিশ-বিএনপি সংঘর্ষ, টিয়ারশেল নিক্ষেপ বাংলাদেশ যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে তৈরি পোশাকের অগ্রাধিকার ভিত্তিক প্রবেশাধিকার চায় পর্তুগালকে সামলানো অত্যন্ত কঠিন ছিল : ইয়াকিন সরকার অর্থনৈতিক সমৃদ্ধির জন্য সমুদ্রকে নিরাপদ রাখতে কাজ করছে : প্রধানমন্ত্রী দেশজুড়ে কোভিড নীতি শিথিল করার ঘোষণা চীনের রাঙ্গামাটিতে পার্বত্য চট্টগ্রামে তুলা চাষ সম্প্রসারণ ও গবেষণা নিয়ে কর্মশালা কর জালিয়াতির মামলায় ট্রাম্প অর্গানাইজেশন দোষী সাব্যস্ত নড়াইলে নাকসী-মাদ্রাসা বাজারে গোয়েন্দা পুলিশের অভিযান ইয়াবাসহ গ্রেফতার ১
  • আপডেট টাইম : 25/03/2022 08:15 PM
  • 201 বার পঠিত

বিশ্বের বিভিন্ন দেশে বাংলাদেশ মিশনের উদ্যোগে যথাযথ মর্যদায় আজ শুক্রবার (২৫ মার্চ) ‘জাতীয় গণহত্যা দিবস’ পালিত হয়েছে।
শুক্রবার সন্ধ্যায় ঢাকায় প্রাপ্ত বিভিন্ন মিশনের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানানো হয়েছে।
জাপানে বাংলাদেশ দূতাবাস : জাপানের টোকিওস্থ বালাদেশ দূতাবাস নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে আজ ‘গণহত্যা দিবস’ পালন করে। দিবসটি উপলক্ষ্যে দূতাবাসের কর্মকর্তা-কর্মচারিরা ‘দূতাবাস ভবনস্থ’ বঙ্গবন্ধু মিলনায়তনে জমায়েত হন।
মুক্তিযুদ্ধের সকল শহীদের স্মরণে এক মিনিট নীরবতা পালনর মাধ্যমে শুরু করা হয় দিনের কার্যক্রম। পরে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট শাহাদত বরণকারী তাঁর পরিবারের সদস্যসহ ২৫ মার্চ কালরাতে ও নয় মাসের মুক্তিযুদ্ধ চলাকালিন ৩০ লাখ শহীদদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে মোনাজাত করা হয়।
এছাড়াও, দিবসটি উপলক্ষ্যে প্রদত্ত রাষ্ট্রপতি এবং প্রধানমন্ত্রীর বাণী পাঠ করে শোনানো হয়।
দিবসটি উপলক্ষ্যে আয়োজিত আলোচনা অনুষ্ঠানে টোকিওতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত শাহাবুদ্দিন আহমদ বক্তৃতার শুরুতেই ১৯৭১ সালের ২৫ মার্চ ভয়ঙ্কর কালরাতে পাকিস্তানি হানাদারদের ঘৃণ্য ও কাপুরুষোচিত আক্রমণে যারা শহীদ হয়েছেন তাঁদেরকে গভীর শদ্ধাভরে স্মরণ করেন। তিনি শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্ নেসা মুজিবসহ ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট নির্মমভাবে নিহত বঙ্গবন্ধু পরিবারের সকল সদস্য এবং বীর মুক্তিযোদ্ধাদের।
এ সময় রাষ্ট্রদূত বলেন, অপারেশন সার্চলাইট নামে পরিচালিত পাকিস্তানি হানাদারদের এ গণহত্যার মূল উদ্দেশ্য ছিল ঢাকাসহ তৎকালীন পূর্বপাকিস্তানের প্রধান শহরগুলোর আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ, ছাত্র ও স্বনামধন্য বুদ্ধিজীবীদের হত্যা এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে পরিচালিত অসহযোগ আন্দোলন কঠোর হস্তে দমন করে তৎকালীন পূর্বপাকিস্তানে পাকিস্তান সরকারের নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠা করা।
তিনি বলেন, ৩০ লাখ শহীদের রক্তে গড়া স্বাধীন বাংলাদেশ আজ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্বে এগিয়ে যাচ্ছে উন্নয়নের মহাসড়কে। রাষ্ট্রদূত জাতির পিতার স্বপ্নের ‘সোনার বাংলা’ বিনির্মাণে সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে যার যার অবস্থান থেকে কাজ করারও আহবান জানান।
এছাড়াও, ভিয়েতনামের হ্যানয়স্থ বাংলাদেশ দূতাবাস এবং ভারতের মুম্বাইয়ে বাংলাদেশের উপ-হাইকমিশনেও এ দিবস পালিত হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
ফেসবুকে আমরা...